অবৈধ পন্থায় অর্জিত টাকায় হজ আল্লাহর দরবারে কবুল হয় না

লিখেছেন লিখেছেন ডক্টর আ ফ ম খালিদ হোসেন ২৬ আগস্ট, ২০১৪, ১০:৪৬:২১ রাত



আল কিবলাহ হজ কাফেলা কর্তৃক চট্টগ্রামের আনিকা ক্লাবে আয়োজিত ‘হজ প্রশিক্ষণ কর্মশালা’য় অংশ নিলাম। অনুষ্ঠানটি ছিল বেশ সফল ও প্রাণবন্ত । বিদগ্ধ আলিম ও চিন্তাবিদগণ বিশেষত মুফতী সিরাজুল ইসলাম, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. নিজাম উদ্দিন, আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. বি এম মফিজুর রহমান আযহারী, মুফতী মাসুম, মাওলানা সোলায়মান, মাওলানা রফিকুল ইসলাম প্রমুখ হজের বিভিন্ন আরাকান-আহকাম নিয়ে মূল্যবান আলোচনা পেশ করেন।

কর্মশালায় আমি একটি কথার উপর বেশ জোর দিয়েছি, তা হল: আল্লাহ তায়ালার দরবারে হজ কবুল হওয়ার পূর্ব শর্ত হল হজের উদ্দেশ্যে ব্যবহৃত অর্থ হালাল পন্থায় অর্জিত হতে হবে। অবৈধ পন্থায় বা হারাম পথে অর্জিত টাকায় হজ করলে তা কবুল হয় না। আমাদের দেশে রেওয়াজ আছে কিছু মানুষ সারা জীবন সুদ, ঘুষ, মাদক ব্যবসা, টেন্ডারবাজি, মাস্তানি করে টাকার পাহাড় গড়ে। বৃদ্ধ বয়সে দাড়ি রেখে জুব্বা গায়ে দিয়ে সপরিবারে হজ করতে যায়। উদ্দেশ্য আল্লাহর সাথে মোটামুটি একটা রফা দফা করে আসা। এটা মহান রাব্বুল আলামীন আল্লাহ তায়ালার সাথে মস্করা করার শামিল। হাদীস শরিফে বর্ণিত আছে হজের বিনিময় হচ্ছে জান্নাত। ইহরামরত অবস্থায় কোন ব্যক্তি হারাম টাকায় মক্কা শরিফে গিয়ে যখন বলে, ‘লাব্বায়েক আল্লাহুম্মা লাব্বায়েক’ তখন মক্কার আসমানে অবস্থানরত লাখ লাখ ফেরেশতা ডাক দিয়ে বলে ‘লা লাব্বায়েক লা সাদায়েক, হাজ্জুকা মারদুদুন আলায়েক’। অর্থাৎ তোমার হাজিরা কবুল নেই, তোমার জন্য কোন সুসংবাদ নেই, তোমার হজ তোমাকে ফেরত দেয়া হল’। এ জন্য হজে যাওয়ার পূর্বে আমাদের তাওবা করতে হবে। মিশকাত শরিফের ভাষ্যকার শায়খ মোল্লা আলী কারী (রহ.)-এর মতে তাওবার অন্যতম পূর্বশর্ত হল হারাম পথে অর্জিত সম্পদ বিক্রি করে আসল মালিকের (ঘুষ, সুদ ও পার্সেন্টেজদাতাদের) নিকট ফেরত দিয়ে আসতে হবে। তারা যদি মারা যায় তা হলে ওয়ারিসদের মাঝে ফারায়েয মতে বন্টন করতে হবে।এর নাম তাওবা।

আল কিবলাহ হজ কাফেলার পরিচালক মাওলানা কুতুব উদ্দিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ কর্মশালায় দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনায় বিশেষ মুনাজাত করা হয়।

বিষয়: বিবিধ

৯০৫ বার পঠিত, ৯ টি মন্তব্য


 

পাঠকের মন্তব্য:

258558
২৬ আগস্ট ২০১৪ রাত ১০:৫১
258566
২৬ আগস্ট ২০১৪ রাত ১০:৫৮
আবু জান্নাত লিখেছেন : جزاك الله خيراالجزاء সাধারণত এসব কথা বর্তমানে অনেকে বলতে চায় না। আপনি সাহস করে বলেছেন, অনেক ধন্যবাদ আপনাকে।
258571
২৬ আগস্ট ২০১৪ রাত ১১:০৯
গ্রামের পথে পথে লিখেছেন : বাংলাদেশের ৯৯% অবৈধ পন্থায় অর্জিত টাকায় হজ করে.................
258576
২৬ আগস্ট ২০১৪ রাত ১১:২৬
চিরবিদ্রোহী লিখেছেন : হক কথা, কিন্তু পাবলিকে বুঝে না। তেনারা মনে করেন সারা জীবন মানুষের ** মাইরা টাকা কামামু, শেষ বয়সে মক্কায় গিয়া একখান লাব্বাইক দিলেই সব সাফ। ছাগল গুলা বুঝে না, হারামের টাকার লাব্বাইকের উপর আল্লাহর সন্তুষ্টির চেয়ে অসন্তুষ্টি বর্ষণের সম্ভবনা বেশি।

অনেক ভাল লাগলো। জাযাকাল্লাহ খইর।
258577
২৬ আগস্ট ২০১৪ রাত ১১:২৬
প্রবাসী আব্দুল্লাহ শাহীন লিখেছেন : অনেক ধন্যবাদ হক লিখার জন্য
258586
২৬ আগস্ট ২০১৪ রাত ১১:৪৪
বুড়া মিয়া লিখেছেন : ভালো লাগলো অনেক ধন্যবাদ
258672
২৭ আগস্ট ২০১৪ সকাল ১০:৩৯
রিদওয়ান কবির সবুজ লিখেছেন : ভালো লাগলো
আরো একটা ধারনা আমাদের দেশে প্রচলিত সেটা হলো হজ্জ বৃদ্ধদের জন্য। তরুনরা হজ্জ করবেনা কারন ফিরে এসে মানবিক কারনেই কোন অপরাধ করতে পারে!!
260179
৩১ আগস্ট ২০১৪ রাত ০৯:২০
খন্দকার মুহাম্মদ হাবিবুল্লাহ লিখেছেন : আল্লাহ তালা আমাদেরকে হালাল টাকায় সহীহ শুদ্ধ নিয়তে হজ্জ করার তাফীক দিন। আমীন।
যাজাকাল্লাহু খায়রান।
263778
১০ সেপ্টেম্বর ২০১৪ রাত ০৮:৩৩
বঙ্গ মিত্র লিখেছেন : পিলাচ ভালো লাগলো অনেক ধন্যবাদ স্বাগতম

মন্তব্য করতে লগইন করুন




Upload Image

Upload File